Image Description

সা’দত হাসান মন্টোর প্রবন্ধ: কাফনের জামা

150.00
($5.00, £4.00)
Format Hardcover
Language Bangla
ISBN 984 20 0041-9
Edition 1st
Pages 120

বিগত তিন দশকের অধিককাল আমি উর্দু কথাসাহিত্যের বিশিষ্ট লেখক লেখিকাদের গল্প-উপন্যাস ও রচনা অনুবাদ করে আসছি। তন্মধ্যে মান্টোর রচনাই সবচেয়ে বেশি। মান্টো শুধু উর্দু ছোটগল্প লিখে ক্ষান্ত হননি, পত্র-পত্রিকায় কলামও লিখতেন এবং সাহিত্য ও সংস্কৃতি নিয়ে জোরালো ভাষায় সাহসিকতার সাথে তাঁর বক্তব্য উপস্থাপন করতেন। তাঁর সেই সব নিবন্ধ ও কলামের অনুবাদ সংকলন ‘কাফনের জামা’। সত্তরের দশকে 12টি নিবন্ধ নিয়ে এই সংকলনটি ‘গল্প লেখক অশ্লীলতা’ নামে প্রকাশিত হয়েছিল। বর্তমান সংকলনে মান্টো সম্পর্কে তাঁর ভাগিনা হামিদ জালালের ‘মান্টো মামার মৃত্যু’ নিবন্ধটি অন্তর্ভুক্ত করেছি। এই নিবন্ধে হামিদ জালাল মদপানে আসক্ত উর্দু সাহিত্যের অমর কথাশিল্পী মান্টোর করুণ মৃত্যুবরণের বর্ণনা দিয়েছেন নিপুণভাবে। তাছাড়া আমি কেন ছবি দেখি না, অভিজাত মহিলা ও চিত্রজগৎ এই দুটি নিবন্ধ এই সংকলনে সন্নিবেশিত হয়েছে। ‘সা’দত হাসান মান্টো : 50 বছর আগে ও পরে’ নিবন্ধে নতুনভাবে মান্টোর জীবনের খুঁটিনাটি বিস্তারিত বিবরণ দিয়েছি, যা পাঠকদের মান্টোকে জানার বিশেষ সুযোগ এনে দেবে। 26শে আগষ্ট 2005 তারিখে দৈনিক জনকণ্ঠের সাময়িকী বিভাগে আমার লেখা “সা’দত হাসান মান্টো: 50 বছর আগে ও পরে” প্রচ্ছদ প্রতিবেদন হিসেবে প্রকাশিত হয়। দৈনিক জনকণ্ঠের সহকারী সম্পাদক বিশিষ্ট কবি নাসির আহমেদ এর উৎসাহ ও অনুপ্রেরণাঃয় এই বিশেষ নিবন্ধটি লিখেছিলাম। লেখাটি পাঠক মহলে সাড়া জাগিয়েছিল। এজন্য আমি তার কাছে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। পোট্রেটে মান্টোর ডাগর ডাগর একজোড়া চোখ এবং রাগী রাগী ভাব সুন্দরভাবে ফুটে উঠেছিল। পোট্রেটটি এঁকেছিলেন জনকণ্ঠের নিজস্ব শিল্পী সাফিন ওমর। “কাফনের জামা” গ্রন্থে সাফিন ওমরের আঁকা পোট্রেটটি ব্যবহৃত হয়েছে। এজন্য শিল্পীর কাছে আমি ঋণী।

Zafar Alam / জাফর আলম

জাফর আলমের জন্ম 1943 সালে পর্যটন শহর কক্সবাজারে। স্কুল জীবন থেকে তার লেখালেখি ও সাংবাদিকতা শুরু। পঞ্চাশের দশকে তিনি সাপ্তাহিক পল্লীবার্তা (পরবর্তীকালে পূর্বদেশ), দৈনিক সংবাদ এবং তৎকালীন পাকিস্তান অবজার্ভার (বর্তমানে বাংলাদেশ অবজার্ভার)- এর বগুড়া জেলা সংবাদদাতা হিসেবে কাজ করেন। 1964 সালে তৎকালীন দৈনিক পাকিস্তানের (অধুনালুপ্ত দৈনিক বাংলা) সহ-সম্পাদক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরে দৈনিক জনপদে সিনিয়র সহ-সম্পাদক হিসেবে যোগদান করেন। 1975 সালে সরকারী নির্দেশে দৈনিক জনপদ বন্ধ হয়ে যায়। এরপর আবলুপ্ত সংবাদপত্রের উদ্বৃত্ত সাংবাদিক হিসেবে তথ্য অধিদপ্তরে তথ্য অফিসার হিসেবে যোগদান করেন। সচিবালয়ে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা হিসেবে সাফল্যের সাথে কাজ করেন। তিনি কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-দূতাবাসে কাউন্সিলার (প্রেস) হিসেবে কাজ করেন। তিনি তথ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন তথ্য অধিদপ্তরের সিনিয়র উপ-প্রধান তথ্য অফিসার (প্রেস) হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। মুন্সী প্রেমচন্দ্রের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে 1981 সালে (29 জুলাই থেকে 31 পর্যন্ত) বানারসীতে ভারতীয় সাহিত্য একাডেমী এক আন্তর্জাতিক সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারে জাফর আলম বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসেবে যোগদান করেন এবং প্রেমচন্দ্রের সাহিত্যকর্ম সম্পর্কে একটি নিবন্ধ পাঠ করেন। অনুবাদক হিসেবে জাফর আলম সুপরিচিত। ইতোমধ্যে তাঁর 18 টি অনুবাদ গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। সাহিত্য ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য কলকাতার সাহিত্য মাসিক প্রমার পক্ষ থেকে জনাব জাফর আলমকে 1997 সালের মার্চ মাসে প্রমা সাহিত্য পদক প্রদান করা হয়।