Image Description

পেশায় উত্তরণে ব্যবস্থাপনা দক্ষতা

1099.00
($35.00, £0.00)
Format Hardcover
Year 2021
Language Bangla
ISBN 978984200633 3
Edition 1st
Pages 448

পেশার উত্তরণে দক্ষ ব্যবস্থাপনা কিভাবে একজন পেশাজীবীকে ক্রমশ নেতৃত্ব ও সাফল্যের স্বর্ণশিখরে নিয়ে যায় এ বই তারই সাবলীল বিবরণী ও দিকনির্দেশনা। একজন উচ্চপদস্থ ব্যবস্থাপকের প্রায় অর্ধশতকের অভিজ্ঞতার আলোকে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা অর্জনের উপায় ও কৌশলের গল্প এটি। বইটি পেশাদারিত্বের গুরুত্ব, কর্মে দক্ষতা অর্জন, পেশায় নিজস্ব ভাবমূর্তি গড়ে তোলা, সাফল্য অর্জন, ক্যারিয়ার প্ল্যানিং, মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা, কর্মমূল্যায়ন পদ্ধতি, কর্ম শৃঙ্খলা, প্রণোদনার প্রয়োজনীয়তা, ব্যবসা ব্যবস্থাপনা নেতৃত্ব, বিক্রয়, বিপণন, বিতরণ ব্যবস্থা ও কৌশল, জাতীয় সুরক্ষা নীতি, জনসংযোগ, অর্থ-ব্যবস্থাপনা, নিরাপত্তা ও সুরক্ষা পদ্ধতি, প্রকল্প বাস্তবায়ন, কর্মস্থলের শৃংখলা নিয়ন্ত্রণ, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা, নৈতিক মূল্যবোধ ও আদর্শ পেশাগত আচরণ ইত্যাদি বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও মৌলিক দলিল। তবে সব সাফল্য নির্ভর করছে দক্ষতা, নিষ্ঠা, ও সততার সাথে কর্ম সম্পাদনের ওপর। যাঁরা পেশার উত্তরণে ব্যবস্থাপনা-দক্ষতা অর্জন করতে আগ্রহী তাঁদের জন্য এ বই এক অব্যর্থ দিক-নির্দেশনার পাণ্ডুলিপি।

Mohammad Hafizur Rahman / মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান

প্রকৌশলী মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান পি. ইঞ্জ পেশায় যন্ত্র প্রকৌশলী। মতিঝিল সেন্ট্রাল গভর্নমেন্ট স্কুল থেকে ১৯৬৮ সনে এসএসসি ও ঢাকা কলেজ থেকে ১৯৭০-এ এইচএসসি তে প্রথম বিভাগ লাভ করেন। ১৯৭৬-এ বর্তমান চুয়েট থেকে গ্র্যাজুয়েশনে প্রথম শ্রেণিতে প্রথম হন। পেশার প্রয়োজনেই ঢা.বি. থেকে এমবিএ ও বিআইএম থেকে পার্সোনেল ম্যানেজমেন্টে পোস্ট গ্রাজুয়েট রেজিষ্টার্ড প্রফেশনাল ইঞ্জিনিয়ার। ’৭৬-এ যোগ দেয়া চুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষকতা পেশা ছেড়ে ১৯৭৭ এ ইষ্টার্ন রিফাইনারী লিঃ এ যোগ দেন এবং ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত ছিলেন, মাঝে ১৯৯১-৯৩ সময়ে চিটাগাং এলপি গ্যাস লিঃ এ প্রধান পদে ডেপুটেশনে ছিলেন। ১৯৯৯ সনে বাংলাদেশের স্বনামধন্য প্রাইভেট প্রতিষ্ঠান সামিট গ্রæপের এল পি গ্যাস প্লান্টের নির্বাহী পরিচালক পদে যোগ দেন। সামিট অয়েল এন্ড শিপিং কোঃ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে মার্চ ২০২১ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন শেষে বর্তমানে অ্যাডভাইজার। সামিটে দীর্ঘ কর্ম জীবনের মাঝে ৪ বৎসর এইচ পি কেমিক্যালস্ লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন। ইষ্টার্ন রিফাইনারীতে কর্মকালীন ক্যানাডিয়ান পেট্রোলিয়াম ইন্সটিটিউট ও পার্টাামিনা ইন্দোনেশিয়ায় পেট্রোলিয়াম রিফাইনীং অপারেশন এবং সেফ্টি ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে দীর্ঘ প্রশিক্ষণ ছাড়াও পেশার প্রয়োজনে ভ্রমণ করেছেন অনেক দেশ। পেশার শুরু থেকে আইইবি-এর সঙ্গে যুক্ত, আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সম্মানী সম্পাদক, ভাইস চেয়ারম্যান, ৩৯ তম কনভেন্শনের আয়োজক কেন্দ্রের সম্পাদক, এবং আইইবি এর মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের চেয়ারম্যান ও অকুপেশনাল সেফ্টি বোর্ড অব বাংলাদেশ, আইইবি এর ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ছিলেন। চুয়েট এক্স এ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও সংগঠক। বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় অস (অকুপেশনাল সেফ্টি ও হেল্থ) কমিটির অন্যতম সদস্য ছিলেন এবং জাতীয় সেফ্টি নীতি মালা প্রণয়ন টেক্নিক্যাল কমিটির অন্যতম সদস্য এবং ডুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট এবং কুয়েটের এনার্জি সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের একাডেমিক কমিটির সদস্যও তিনি। “অকুপেশনাল সেফ্টি, হেল্থ এন্ড এনভায়রনমেন্ট ম্যানেজমেন্ট” বইয়ের লেখক এবং সেফ্টি বিষয়ে আইইবি প্রশিক্ষক। পেশায় সেফ্টি তার প্রিয় বিষয়। একই বিষয়ে ও প্রশিক্ষণে যুক্ত থাকতে স্বাচ্ছন্দ। বর্ণাঢ্য জীবনে বহু সামাজিক ও ক্রীড়া সংগঠনের উদ্যোক্তা।